1. jahidul.savarnews24@gmail.com : News Editor : News Editor
  2. jahidul.moviebangla@gmail.com : Jahidul Islam : Jahidul Islam
  3. savarnews24@gmail.com : savarnews24 :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩১ অপরাহ্ন
ঘোষনা :
সাভার নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে সবাইকে স্বাগতম >> আপনার আশপাশের ঘটে যাওয়া ঘটনা জানাতে আমাদের মেইল করুন। ই-মেইল : savarnews24@gmail.com
শিরোনাম :
ভাকুর্তা ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হাজী লিয়াকতের মোটর শোভাযাত্রা সাভারে র‌্যাবের হানা খাদ্যে ব্যবহৃত রাসায়নিক উদ্ধার ২লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা মননোয়ন বঞ্চিত ২বারের চেয়ারম্যান এর ক্ষোভ (ভিডিও) মননোয়ন বঞ্চিত ২বারের চেয়ারম্যান এর ক্ষোভ প্রকাশ বর্তমান নির্বাচন কমিশনার পুরোপুরি ব্যর্থ: এম সাখাওয়াত হোসেন বেদে মনতাজের শেষ ইচ্ছা পূরণ করলেন ডিআইজি হাবিবুর রহমান তুরাগে নৌকাডুবি : মৃতের পরিবার পাবে ২০ হাজার টাকা সিংগাইরের চান্দহর ইউনিয়নে নারী কোঠায় আ.লীগের মনোনয়ন চান শোভা ভারতে আরও ইলিশ পাঠালে বাংলাদেশে দাম ঠিক থাকতো: আনন্দবাজার সিংগাইরে ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু

বাস টার্মিনাল ইজারা নিয়ে বিপাকে ঠিকাদার

  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭০ বার পড়েছেন

দেশে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) নিয়ন্ত্রণে গত এক বছরে তিন দফায় নাগরিকদের চলাচলে বিধিনিষেধ দিয়েছিল সরকার। এ সময় সড়কে গণপরিবহন চলাচলে বিধিনিষেধ ছিল। সে সময় বন্ধ ছিল পুরান ঢাকার ফুলবাড়িয়া স্টপওভার বাস টার্মিনাল। এখন করোনা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। সবকিছু চলছে স্বাভাবিকভাবে। কিন্তু ওই বাস টার্মিনাল যে ঠিকাদার ইজারা নিয়েছিলেন, তিনি এখন বিপাকে পড়েছেন। বিধিনিষেধের দিনগুলোর জন্য কোনো ছাড় বা ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন না তিনি।

গত বছরের ১৩ অক্টোবর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) থেকে দুই কোটি ৫০ লাখ টাকায় ফুলবাড়িয়া স্টপওভার বাস টার্মিনালের টার্মিনাল ফি ও কুলিমজুরি আদায়ে ইজারা নিয়েছিল মিনহাজ এন্টারপ্রাইজ। ভ্যাট, ট্যাক্সসহ মোট টাকার পরিমাণ ছিল তিন কোটি। আগামী ১৩ অক্টোবর এই ইজারার মেয়াদ শেষ হবে।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জানায়, তাদের কার্যাদেশের ৭ নম্বর শর্ত অনুযায়ী, ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, ১ মে, পূর্ণ দিবস হরতাল বা অবরোধ ইত্যাদি দিনগুলো কার্যদিবস থেকে বাদ দেওয়া যাবে। অথচ গত এক বছরে বিধিনিষেধে গণপরিবহন বন্ধ ছিল প্রায় তিন মাস। এখন মানবিক দিক বিবেচনা করে সেই দিনগুলোর টাকা ছাড় দিতে ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বরাবর আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু ইতিবাচক সায় দিচ্ছে না সিটি করপোরেশন।

প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ছাড় বা ক্ষতিপূরণ না পেলে তাদের কমপক্ষে এক কোটি টাকা লোকসান হবে।

তবে ডিএসসিসি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সাধারণত হরতাল বা অবরোধ থাকলে বাস টার্মিনাল এবং পার্কিং ইজারার মেয়াদ বাড়ানো হয়। বিষয়টি সিটি করপোরেশনের আইনেও উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু বিধিনিষেধের বিষয়ে আইনে কিছু বলা নেই। তাই ইজারার মেয়াদ বাড়ানোর সুযোগ নেই। তবে মানবিক দিক বিবেচনা করে সংস্থা প্রধান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস এই ইজারার মেয়াদ বাড়ানো বা ক্ষতিপূরণ দিতে পারেন।

ডিএসসিসির বাস টার্মিনালগুলোর ইজারা কার্যক্রম পরিচালনা করে সংস্থাটির পরিবহন বিভাগ। এ বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সত্যিকার অর্থেই লোকসানে পড়বে। তারা টার্মিনালটি ইজারা নেওয়ার দুই মাস পরই ফুলবাড়িয়া সুপার মার্কেট-২ এর পার্কিং এবং চারপাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা দোকান উচ্ছেদ শুরু করে ডিএসসিসি। টানা এক মাস ধরে এ অভিযান চলায় টার্মিনাল এলাকায় ঠিকমতো যানবাহন ঢুকতে পারেনি। ভাঙা দোকানের ইট-সুরকি রাস্তার ওপর স্তূপ হয়ে পড়েছিল আরও কয়েক মাস। এতে ঠিকমতো টোল আদায় করতে পারেনি ইজারাদার প্রতিষ্ঠান।

fulbaria-Top.jpg

পরে দুই বছরে তিন দফায় বিধিনিষেধে গণপরিবহন বন্ধ ছিল। তখন বাস টার্মিনাল থেকে কোনো টোল আদায় করতে পারেনি ঠিকাদার। সবশেষ গত আগস্টে টার্মিনালের সামনে এবং পেছনের সড়কে জলাবদ্ধতা নিরসনে খোঁড়াখুঁড়ি শুরু করে ডিএসসিসি। এতে টার্মিনালটি কার্যত অচল হয়ে যায়।

সম্প্রতি সরেজমিনে দেখা যায়, ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনালের সামনের সড়কে (ফুলবাড়িয়া থেকে বঙ্গবাজার) খোঁড়াখুঁড়ির কারণে পুরো সড়কে যান চলাচল বন্ধ। পেছনে সিদ্দিকবাজার সড়ক এবং নর্থসাউথ রোডও কেটে রাখা হয়েছে। ফলে ঠিকমতো টার্মিনাল ব্যবহারের সুযোগ পাচ্ছেন না পরিবহন চালকরা। পর্যাপ্ত টোল আদায় করতে পারছেন না ইজারাদারের লোকজন।

মিনহাজ এন্টারপ্রাইজের কার্যাদেশ পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ফুলবাড়িয়া টার্মিনাল থেকে নগরীর বিভিন্ন গন্তব্যসহ ধামরাই, মানিকগঞ্জ, সাভার, গাজীপুর, নবীনগর, আরিচা, কাপাসিয়া, শ্রীপুর, সখীপুর, শ্রীনগর, দোহার রুটে বাস চলাচল করে। এসব বাস থেকে টার্মিনাল ফি ৪০ টাকা এবং অটোরিকশা, সিএনজি থেকে প্রতি ট্রিপে ১০ টাকা, টেম্পো বা লেগুনা থেকে ৩০ টাকা করে টোল আদায় করার অনুমোদন রয়েছে। এছাড়া গুলিস্তান গোলাপশাহ মাজার, বঙ্গবাজার, চাঁনখারপুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক মুসলিম হল এলাকা, বাহাদুরশাহ পার্ক, নয়াবাজার, বাবুবাজার, আজিমপুর, নিউমার্কেট এলাকা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন গন্তব্যে ছেড়ে যাওয়া বাস-মিনিবাস থেকে এই ইজারাদারের টোল আদায়ের অনুমোদন রয়েছে।

করোনার কারণে চলা বিধিনিষেধের সময় শুধু রিকশা-ভ্যান ছাড়া অন্য সব যানবাহনই বন্ধ ছিল।

সার্বিক বিষয়ে মিনহাজ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী সাইফুর রহমান বলেন, যে পরিমাণ টাকা দিয়ে বাস টার্মিনাল ইজারা নিয়েছি, তার এক-তৃতীয়াংশ টাকাও এখন পর্যন্ত ওঠাতে পারিনি। লকডাউন এবং টার্মিনাল এলাকার নানা অব্যবস্থাপনা এ সমস্যা সৃষ্টি করছে। এতে লাভের পরিবর্তে এক কোটি টাকার বেশি লোকসান হয়েছে। এখন মানবিক দিক বিবেচনা করে ডিএসসিসি মেয়র কিছুটা ছাড় দিলে ক্ষতি পোষাতে পারবো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির পরিবহন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক বিপুল চন্দ্র বিশ্বাস জাগো নিউজকে বলেন, ফুলবাড়িয়ার ওই বাস টার্মিনাল ইজারায় মাসখানেক আগে নতুন করে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। তবে বিধিনিষেধে মিনহাজ এন্টারপ্রাইজের লোকসানের বিষয়টি অবগত আছি। বিষয়টি ডিএসসিসি মেয়রকে জানানো হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সংক্রান্ত আরও খবর :